কৃষ্ণনগরের এই রেস্তোরাঁয় রান্না থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁ পরিচালনা পুরোটাই করেন মায়েরাই

কৃষ্ণনগরের এই রেস্তোরাঁয় রান্না থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁ পরিচালনা পুরোটাই করেন মায়েরাই

কলকাতা থেকে কৃষ্ণনগরের দূরত্ব প্রায় ১১০ কিলোমিটার | আর এই কৃষ্ণনগরের ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের উপরে ইন্ডিয়ান অয়েল পেট্রল পাম্পের পাশেই আছে এক রেস্তো রাঁ |নাম ‘মাদার’স হাট: ফ্যামিলি ফুড কোর্ট।’ এত রেস্তোরাঁ  থাকতে হঠাৎ এই রেস্তোরাঁর কথা উঠল কেন ? উঠল কারণ এই রেস্তোরাঁ অন্য রেস্তোরাঁর থেকে অনেকটাই আলাদা | এখানে মায়েরাই রাঁধেন , পরিবেশন করেন | এমনকি রেস্তোরাঁ পরিচালনার সমস্ত কাজটাই করেন মায়েরাই |

মাদার’স হাট রেস্তোরাঁটিতে ঢুকলেই চোখে পড়বে রেস্তোরাঁর ভিতরের সাজসজ্জা | দেওয়াল জুড়ে রয়েছে সবুজের সমারোহ, রয়েছে বিভিন্ন লতানো গাছ | পাশাপাশি রয়েছে আধুনিকতার ছাপ | সব মিলিয়ে এক মনোমুগ্ধকর পরিবেশ | এই রেস্তোরাঁয় অতিথি আপ্যায়ন থেকে শুরু করে রান্না করা, অর্ডার নেওয়া, পরিবেশন করা, বিল কাউন্টার সামলানো পুরোটাই করছেন মায়েরাই | কোমরে আঁচল গুঁজে খাবারের থালা হাতে মায়েদের ব্যস্ততা নজর কাড়বেই | এমনকি এই মায়েরা টেক-স্যাভিও | অর্ডার নেওয়া থেকে শুরু করে বিলিং প্রত্যেকটা কাজই হচ্ছে প্রযুক্তির মাধ্যমে |

আরো পড়ুন:  যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এই প্রাক্তনী প্রথম ভারতীয় মহিলা যিনি অ্যান্টার্কটিকা অভিযানে গিয়েছিলেন

কি কি পাওয়া যায় এই রেস্তোরাঁয় ?
বাঙালি খাবার থেকে শুরু করে চাইনিজ – সবই পাওয়া যায় এই রেস্তোরাঁয় | রয়েছে মোগলাই খাবার, বিরিয়ানি | রয়েছে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের খাবার | কেক-পেস্ট্রি-কুকিজ-আইসক্রিম সবই পাওয়া যায় এখানে | আর আছে বিভিন্ন মিষ্টি | প্রতিটা খাবারই সুস্বাদু | প্রতিটা খাবারেই রয়েছে মায়েদের মায়ের স্নেহের পরশ | সেই কারণেই মানুষের ঢল নামে এই রেস্তোরাঁয় | কলেজ ছুটি হলেই তরুণ-তরুণীরা চলে আসেন এই রেস্তোরাঁয় মায়ের হাতের রান্না খেতে |

আরো পড়ুন:  উদ্যত বন্দুকের সামনে প্রৌঢ় অধ্যাপক বলেছিলেন, Good sence! জবাবে ছুটে এল একঝাঁক বুলেট

মাদার’স হাটে এখন কাজ করেন ১৫০ জন মা | প্রত্যেকেই একদম সাধারণ পরিবারের | সংসার সামলে সাইকেলে চেপে অনেকেই মায়েরাই আসেন এই রেস্তোরাঁয় | এই রেস্তোরাঁ মায়েদের দিয়েছে স্বনির্ভরতা | চোখে আঙ্গুল দিয়ে মায়েরা দেখিয়ে দিয়েছে বাঙালি ব্যবসা করতে জানে | তাহলে আর দেরি কিসের ! রান্নায় আর আপ্যায়নে মায়ের মতই স্নেহ ভালবাসা পেতে একবার চলেই আসুন নদিয়ার কৃষ্ণনগরের “মাদার’স হাট: ফ্যামিলি ফুড কোর্ট” এ |

আরো পড়ুন:  মাহেশের রথযাত্রার সঙ্গে ছড়ানো ছিটানো গির্জা......বয়ে যাওয়া সময়ের গল্প বলে শ্রীরামপুর

-অভীক মণ্ডল
তথ্য : দ্যা ওয়াল

Avik mondal

Avik mondal

করোনাকে না করো

ভাইরাসের কবলে আজ সারা বিশ্ব,গৃহবন্দী বিশ্ববাসী।বন্ধ দ্বার খুলতে তাই নিজেদের সুরক্ষিত রাখুন,হাত ধুয়ে নেমে পড়ুন এই ভাইরাস দমনে।