ইউরোপে সত্তর হাজার ভারতীয় প্রাণ দিয়েছেন প্রথম বিশ্বযুদ্ধে,প্রথম কিন্তু একজন বাঙালি

ইউরোপে সত্তর হাজার ভারতীয় প্রাণ দিয়েছেন প্রথম বিশ্বযুদ্ধে,প্রথম কিন্তু একজন বাঙালি

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ……১৯১৪ সালে ইউরোপের মাটিতে শুরু হয়েছিল এক মহারণ। প্রায় দেড় লাখ ভারতীয় ভাগ নিয়েছিলেন সেই লড়াইয়ে। দেশ থেকে বহু দূরে বিদেশের মাটিতে প্রাণ দিয়েছেন তাদের মধ্যে সত্তর হাজার সেনা। কিন্তু প্রথম নিহত হয়েছিলেন যিনি…….,তিনি এক বঙ্গসন্তান !

সে অনেকদিন আগের কথা, ১৯১০ সালে ফরাসি অধিকৃত চন্দননগর থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে এক বাঙালি পা রাখলেন ইংল্যান্ডের মাটিতে। ভর্তি হলেন ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারের লীডস বিশ্ববিদ্যালয়ে। পাশ করার পর চাকরি পেয়ে যান লীডস ইলেকট্রিক কর্পোরেশনে, সহকারী ইঞ্জিনিয়ার।

আরো পড়ুন:  আমেরিকার স্বাচ্ছন্দ্যের জীবন ছেড়ে বাংলায় ফিরে "অর্গানিক ফার্মিং" পদ্ধতিতে চাষবাস করছেন বাঙালি দম্পতি

সন ১৯১৪, যুদ্ধ শুরু হতে তিনিই প্রথম ভারতীয়, যিনি বৃটিশ সেনাদলে নাম লেখান। সময়টা সম্ভবত সেপ্টেম্বর মাস। বাহিনীর নাম 15th West Yorkshire Regiment, ওদেশে পরিচিত ছিল Leeds Pals Battalion নামে। সহযোদ্ধাদের কাছে তিনি ছিলেন বাহিনীর একমাত্র অশ্বেতকায় সেনা। আর সেজন্যই বোধহয় ইঞ্জিনিয়ার হওয়া সত্ত্বেও সেনাবাহিনীতে কমিশন্ড পাননি।

২২শে মে, ১৯১৬ সালে ফ্রান্সের এক রণক্ষেত্রে প্রাণ দেন তিনি। বয়স হয়েছিল মাত্র আটাশ বছর। উত্তর ফ্রান্সের কলিনক্যাম্পস সমাধিস্থলে চিরনিদ্রায় শায়িত চন্দননগরের এই বাঙালি। লীডস বিশ্ববিদ্যালয়ের যুদ্ধে নিহত সেনাদের স্মারক স্তম্ভে আজও দেখা যায় তার নাম।‌🥀🥀

আরো পড়ুন:  বিলাসপুর জেলে ৭৮ দিন অনশন করেছিলেন,২৫ বছর বিনা বিচারে জেলে কাটিয়েছিলেন ভূপেন্দ্র কুমার দত্ত

আম বাঙালির কাছে অচেনাই রয়ে যেতেন এই সাহসী মানুষটি যদি না লন্ডন প্রবাসী বাঙালি গবেষক শান্তনু দাস BBC তে এক পাকিস্তানি সাংবাদিক শাহীদ হুসেইনের ডকুমেন্টারি দেখতেন….From Bombay to the Western Front:Indians in the First World War.‌‌🔥

ছবি দেখে ২০০৫ সালে ছুটে এসেছেন চন্দননগর। সেখানকার ফ্রেঞ্চ ইনস্টিটিউটে খুঁজে পেয়েছেন রক্তের দাগ লাগা একটি ভাঙ্গা চশমা। যুদ্ধের ভয়ংকর স্মৃতি বয়ে নিয়ে আসা এক সেনানীর শেষ চিহ্ন। ওখানে আরো রাখা আছে স্বর্ণকেশী এক ইউরোপীয় যুবতীর ফটো, একটা রেজার আর একটি পাতলা কবিতার বই , যাতে cis বলে কারো সাক্ষর। স্থানীয় গবেষক ও ঐতিহাসিকদের প্রচেষ্টায় টুকরো টুকরো কাহিনী জোড়া দিয়ে লিখেছেন তার গবেষণা লব্ধ উপন্যাস,
1914-1918: Indians on the Western Front’.

আরো পড়ুন:  ভারতীয় সঙ্গীত আধ্যাত্মিকতার উপর ভিত্তি করে তৈরী,ধর্মের উপর ভিত্তি করে নয়, বলেছিলেন নিখিল রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়

ওহো এতক্ষণে তো ওনার নামটাই বলা হলোনা। ইনি সেনদের টুপিতে আরো এক উজ্জ্বল পালক…..যোগীন্দ্রনাথ সেন।‌🌹🌹
‌🌲 সংকলনে ✍🏻 স্বপন সেন 🌲

বাংলা আমার প্রাণ

বাংলা আমার প্রাণ

"বাংলা আমার প্রাণ" বাংলা ও বাঙালির রীতিনীতি,বিপ্লবকথা,লোকাচার,শিল্প ও যাবতীয় সব কিছুর তথ্য প্রকাশ করে।বাংলা ভাষায় বাংলার কথা বলে "বাংলা আমার প্রাণ"। সকল খবর ও তথ্য আপনাদের কেমন লাগছে,তা আপনাদের কতোটা মন ছুঁতে পারছে তা জানতে আমরা আগ্রহী।যাতে আগামী দিনে আপনাদের আরো তথ্য উপহার দিতে পারি। আপনাদের মতামত ওয়েবসাইটে প্রকাশ করুন,আরো এগিয়ে যাওয়ার পথে এটিই আমাদের পাথেয়। বিন্দু বিন্দুতে সিন্ধু গড়ে ওঠে।আর তাই আজ আপনাদের ভালোবাসা সহযোগিতা ও অনুপ্রেরণায় আমরা এক বৃহৎ পরিবার।এখনো বহু পথ চলা বাকি তাই আপনাদের সাধ্য ও বিবেচনা অনুযায়ী অনুদান দিয়ে এই পেজের পাশে থাকুন। আমাদের পেজে প্রকাশিত সকল তথ্য আমরা একে একে নিয়ে আসছি আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আকারে।দয়া করে আমাদের পেজ ও ওয়েবসাইট থেকে প্রকাশিত কোনো তথ্য বা লেখা নিয়ে কোনো ভিডিও বানাবেন না।যদি ইতিমধ্যে তা করে থাকেন তবে তা অবিলম্বে মুছে ফেলুন। আমাদের সকল কাজ DMCA কর্তৃক সংরক্ষিত তাই এ সকল তথ্যাদির পুনর্ব্যবহার বেআইনি ও কঠোর পদক্ষেপ সাপেক্ষ।ধন্যবাদ।

করোনাকে না করো

ভাইরাসের কবলে আজ সারা বিশ্ব,গৃহবন্দী বিশ্ববাসী।বন্ধ দ্বার খুলতে তাই নিজেদের সুরক্ষিত রাখুন,হাত ধুয়ে নেমে পড়ুন এই ভাইরাস দমনে।