সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে হয়ে ক্যারাটে ওয়ার্ল্ড কাপে রৌপ্যপদক জয়,অরিত্রি দে অনুপ্রেরণার আরেক নাম

সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে হয়ে ক্যারাটে ওয়ার্ল্ড কাপে রৌপ্যপদক জয়,অরিত্রি দে অনুপ্রেরণার আরেক নাম

অরিত্রি দে’র বয়স তখন মাত্র তিন | একদিন মায়ের হাত ধরে বাড়ি ফিরছিল ছোট্ট মেয়েটা | বাড়ি ফেরার সময় দেখল পাড়ার এক ক্লাবে অনেকে ক্যারাটে শিখছে | মেয়েটির মনে ইচ্ছা হয় ক্যারাটে শেখার | কিন্তু সাধারণ মধ্যবিত্ত বাঙালি পরিবারে যা হয়, প্রথমে বাবা মা কেউই রাজি হল না | তখনকার মত ক্যারাটে আর শেখা হল না মেয়েটির | কিন্তু মনে ইচ্ছা ছিলই যে একদিন সে ক্যারাটে শিখবেই |

কয়েকবছর পর অরিত্রি স্কুলে ভর্তি হল | স্কুলে গিয়ে সে দেখল স্কুলে ক্যারাটে শেখানো হয় | অরিত্রির সামনে খুলে গেল দরজা | অরিত্রি শিখতে লাগল ক্যারাটে | পাশাপাশি বাড়িতেও পড়ার ফাঁকে চলতে লাগল প্র্যাক্টিস | এইসময় একদিন হাওড়াতে একটি ক্যারাটে টুর্নামেন্টের আয়োজন হয় | অরিত্রি ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় | কিন্তু সেই প্রতিযোগিতায় সে প্রথম রাউন্ডেই হেরে যায় | সেদিন অরিত্রি দেখেছিল প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের | অরিত্রি শপথ নিয়েছিল একদিন সেও বিজয়ী হবেই | শুরু হয় লড়াই | বেড়ে যায় অনুশীলনের সময় | ২০০৭ সালে ক্যারাটের স্টেট চ্যাম্পিয়নশিপে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার জেলার থেকে অংশ নেয় অরিত্রি | সেই প্রতিযোগিতায় কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনাকে হারিয়ে অরিত্রি ক্যারাটের স্টেট চ্যাম্পিয়ন হয় | এরপর একে একে আসতে লাগে সাফল্য | অরিত্রি দে বর্তমানে ক্যারাটেতে ৮ বারের স্টেট চ্যাম্পিয়ন এবং ৫ বারের ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন |

আরো পড়ুন:  ভাই বাইশ গজে ভেল্কি দেখাতেন,দাদা রাইটার্সে "ক্লিন বোল্ড" করেছিলেন অত্যাচারী সিম্পসনকে

এরপরেই অরিত্রির সামনে আসে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ | কিন্তু সেখানে যেতে দরকার অর্থের | শেষমেশ অরিত্রির পাশে দাঁড়ায় wow momo | তারা অরিত্রিকে আর্থিক সাহায্য করে | এর পাশাপাশি পরিবারের লোকের সাহায্যে অরিত্রি ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়ার ক্যারাটে ওয়ার্ল্ড কাপে অংশ নেয় | সেখানেও অসাধারণ লড়াই করে অরিত্রি,দ্বিতীয় স্থান পায় সে | এই প্রতিযোগিতার পাশাপাশি কমনওয়েলথ গেমস,সাউথ এশিয়ান ক্যারাটে কম্পিটিশনেও অরিত্রি দে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছে |

আরো পড়ুন:  মোহনবাগানের হয়েই খেলবেন,টটেনহ্যাম হটস্পারের অফার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন চুনী গোস্বামী

অভিজ্ঞতা এবং অনুশীলনের অভাবে প্রথম টুর্নামেন্টে বিশ্রীভাবে হারলেও সেই কান্নাকেই নিজের আগুনে পরিণত করেছিলেন অরিত্রি | স্পনসর না-পাওয়া স্বত্ত্বেও অরিত্রি একের পর এক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় দেশের জন্য পদক এনেছেন | আর্থিক সংকটেও চালিয়ে গিয়েছেন লড়াই | সত্যি করেছেন জীবনের স্বপ্ন | এখানেই শেষ নয় | অরিত্রি দে বর্তমানে একটি সংস্থা খুলেছেন | ওই সংস্থার মাধ্যমে মহিলাদের “সেলফ ডিফেন্স” শেখাচ্ছেন তিনি | এগিয়ে চলুক অরিত্রি…..

আরো পড়ুন:  ইডেনে ২০ রান দিয়ে ৭ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন "ক্রিকেটার" স্বামী বিবেকানন্দ

তথ্য : জোশ টক্স

Avik mondal

Avik mondal

Related post

করোনাকে না করো

ভাইরাসের কবলে আজ সারা বিশ্ব,গৃহবন্দী বিশ্ববাসী।বন্ধ দ্বার খুলতে তাই নিজেদের সুরক্ষিত রাখুন,হাত ধুয়ে নেমে পড়ুন এই ভাইরাস দমনে।