দিনে ২৫-৩০ বার চা খেতেন নেতাজী,পছন্দ করতেন নারকেলের তৈরী মিষ্টি

দিনে ২৫-৩০ বার চা খেতেন নেতাজী,পছন্দ করতেন নারকেলের তৈরী মিষ্টি

ভারতের স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম নায়ক ছিলেন নেতাজী। তাকে নিয়ে বাঙালির মনে আজও রয়ে গেছে বহু কৌতূহল | কল্পজগতের থেকেও অবিশ্বাস্য অবাধ যাঁর বিচরণ। সেই মানুষটার খাদ্যাভাস কেমন ছিল? কি খেতে ভালোবাসতেন নেতাজী ?এই প্রশ্ন আমাদের অনেকের মনেই হয়ত জেগেছে|

কিছু বইপত্র ঘেঁটে বার করার চেষ্টা করলাম সেই প্রশ্নের উত্তর |

সাধারণ বাঙালির মত ভাত ,ডাল, সবজি ছিল তাঁর খুব পছন্দের | ডালের মধ্যে সোনা মুগ ডাল ছিল তাঁর খুব প্রিয় | ভাতেভাত ও খিচুড়িও বিশেষ পছন্দ ছিল নেতাজীর | প্রথমে সকল আমিষ খাবার খেলেও পরে মাছ ছাড়া অন্য কোন আমিষ খাবার খেতেন না তিনি | খাবার শেষ পাতে থাকত টক দই আর বিভিন্ন মিষ্টি | মিষ্টির মধ্যে রসগোল্লা, সন্দেশ, চমচম ছিল তাঁর পছন্দের | এছাড়াও ভালোবাসতেন নারকেলের তৈরী মিষ্টি এবং গ্রামবাংলার তৈরী মিষ্টি | চিনির পুলি, মনোহরা, নারকেল নারু, রসকরা, ছাতুর বার্ফি, মুরির নারু, মোয়া, তিলের নারু এবং তিলের চাকতি ইত্যাদি বিশেষ প্রিয় ছিল নেতাজীর |

আরো পড়ুন:  নীলগঞ্জ ও ঝিকরগাছাতে ব্রিটিশরা হত্যা করেছিল ৫০০০ আজাদ হিন্দ সৈন্যকে,ইতিহাসের অলিখিত অধ্যায়

তাঁর সব থেকে প্রিয় পানীয় ছিল চা।জানা যায় তিনি দিনে ২০-২৫বার চা খেতেন।তবে সিঙ্গাপুরে থাকাকালীন কফি র প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ছিলেন যথেষ্ট। এছাড়াও লেবুর শরবত খেতে ভালোবাসতেন তিনি | গরম জলে বিটনুন দিয়ে লেবুর রস মিশিয়ে তিনি প্রায়ই খেতেন | ফলের মধ্যে আঙুর, কলা খুব পছন্দ ছিল নেতাজীর | প্রচন্ড সুপারি খেতেন নেতাজি | এমনকি ব্যাডমিন্টন খেলার সময়ও তিনি সুপুরি খেতেন | পরে অবশ্য সুপারি সম্পূর্ণ ছেড়ে দিয়ে হরিতকি খেতেন।

আরো পড়ুন:  জামাইষষ্ঠীতে জমিদার বাড়ির জামাইকে ঠকাতে জলভরা সন্দেশ আবিষ্কার করেছিলেন সূর্য মোদক

স্বাধীনতার সংগ্রামের কাজের জন্যে তিনি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে বেড়াতেন | এই কাজ করতে গিয়ে একবার তাঁর শরীর খুব ভেঙে যায় | ১৯৩৭ সালে তিনি স্বাস্থ্য পুনরোদ্ধার করতে যান হিমাচল প্রদেশের ডালহৌসিতে | শোনা যায় সেখানকার একটি জলাশয় বা বাউলির জল খেয়ে তিনি সুস্থ হয়ে ওঠেন | সেই জায়গা আজও সুভাষ বাউলি নামে পরিচিত |

লক্ষীনারায়ণ সাউ এন্ড সন্স দোকানের তেলেভাজা খুব প্রিয় ছিল নেতাজীর | দোকানের আশেপাশেই নানা ডেরায় গোপন মিটিং বসত স্বদেশীদের। তেমনি কোনো এক মিটিঙে এসেছিলেন স্বয়ং সুভাষচন্দ্র বসু। সেদিন তেলেভাজা নিয়ে আসা হল ওই দোকান থেকে | তেলেভাজা খেয়ে মুগ্ধ হয়েছিলেন নেতাজী | ১৯৪২ সাল থেকে প্রতি বছর নেতাজির জন্মদিনে, ২৩ জানুয়ারি, বিনামূল্যে তেলেভাজা বিতরণ শুরু করেন দোকানের মালিক খেঁদু সাউ। সেই ট্র্যাডিশন এখনো চলছে। নেতাজীর জন্মদিনে সকাল সাতটা থেকে বেলা তিনটে অবধি চলে এই বিনামূল্যে তেলেভাজা বিতরণ।

আরো পড়ুন:  ব্রিটিশ জাহাজ দুরন্ত গতিতে এগিয়ে আসছে,শেষ মূহূর্তে কন্ট্রোল রুমের নিখুঁত কৌশলে ডুবল নেতাজীর সাবমেরিন

পারামাউন্টের ডাবের শরবত খুব পছন্দ ছিল নেতাজীর | কফিহাউসেও প্রায়ই যেতেন নেতাজী | প্রেসিডেন্সিতে পড়ার সময় সূর্যসেন স্ট্রিটের ফেভারিট কেবিনে যেতেন নেতাজী | বসতেন ৪ নম্বর টেবিলে | আজও ৪ নম্বর টেবিল শ্রদ্ধার বিষয় এখানেও। ওখানে বসেই তিনি শুনতেন নজরুলের গান | ওখানে রান্নাঘরের পাশের ঘরেই বসত বিপ্লবীদের গোপন বৈঠক | স্বাধীন ভারত হিন্দু হোটেলেও যেতেন নেতাজী | এখানে নিজের হাতে শতরঞ্চি পেতে বন্ধুদের নিয়ে এক আনায় দুবেলা ভরপেট মাছ ভাত খেয়েছেন নেতাজী বহুবার |এছাড়াও ভীমচন্দ্র নাগের সন্দেশও খুব পছন্দ ছিল নেতাজীর |

লেখক – অভীক মণ্ডল

বাংলা আমার প্রাণ

বাংলা আমার প্রাণ

"বাংলা আমার প্রাণ" বাংলা ও বাঙালির রীতিনীতি,বিপ্লবকথা,লোকাচার,শিল্প ও যাবতীয় সব কিছুর তথ্য প্রকাশ করে।বাংলা ভাষায় বাংলার কথা বলে "বাংলা আমার প্রাণ"। সকল খবর ও তথ্য আপনাদের কেমন লাগছে,তা আপনাদের কতোটা মন ছুঁতে পারছে তা জানতে আমরা আগ্রহী।যাতে আগামী দিনে আপনাদের আরো তথ্য উপহার দিতে পারি। আপনাদের মতামত ওয়েবসাইটে প্রকাশ করুন,আরো এগিয়ে যাওয়ার পথে এটিই আমাদের পাথেয়। বিন্দু বিন্দুতে সিন্ধু গড়ে ওঠে।আর তাই আজ আপনাদের ভালোবাসা সহযোগিতা ও অনুপ্রেরণায় আমরা এক বৃহৎ পরিবার।এখনো বহু পথ চলা বাকি তাই আপনাদের সাধ্য ও বিবেচনা অনুযায়ী অনুদান দিয়ে এই পেজের পাশে থাকুন। আমাদের পেজে প্রকাশিত সকল তথ্য আমরা একে একে নিয়ে আসছি আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আকারে।দয়া করে আমাদের পেজ ও ওয়েবসাইট থেকে প্রকাশিত কোনো তথ্য বা লেখা নিয়ে কোনো ভিডিও বানাবেন না।যদি ইতিমধ্যে তা করে থাকেন তবে তা অবিলম্বে মুছে ফেলুন। আমাদের সকল কাজ DMCA কর্তৃক সংরক্ষিত তাই এ সকল তথ্যাদির পুনর্ব্যবহার বেআইনি ও কঠোর পদক্ষেপ সাপেক্ষ।ধন্যবাদ।

করোনাকে না করো

ভাইরাসের কবলে আজ সারা বিশ্ব,গৃহবন্দী বিশ্ববাসী।বন্ধ দ্বার খুলতে তাই নিজেদের সুরক্ষিত রাখুন,হাত ধুয়ে নেমে পড়ুন এই ভাইরাস দমনে।