৪০ বছরে ধরে ‘আপনজন’ এর ফিস ফ্রাইতে মুগ্ধ বাঙালি

৪০ বছরে ধরে ‘আপনজন’ এর ফিস ফ্রাইতে মুগ্ধ বাঙালি

প্রায় চল্লিশ বছর আগের কথা | প্রভাস ঘোষ ও মধুসূদন ঘোষ কলকাতার কালীঘাটে চালু করলেন এক দোকান | সেই সময়ে ওই দোকানে ২৫ পয়সায় পাওয়া যেত রাধাবল্লভী, ১০ পয়সায় পাওয়া যেত ভেজিটেবল চপ | তখন মাত্র তেরো টাকায় পাওয়া যেত ফিশ ফ্রাই | তারপর কেটে গিয়েছে চল্লিশ বছর | এখন প্রায় নব্বই ধরণের আইটেম পাওয়া যায় সেই দোকানে | ফিশ ফ্রাইয়ের নাম শুনলে কলকাতার যে দোকানের কথা ভোজনরসিক বাঙালির সবচেয়ে প্রথমে মনে আসে সেই দোকানের কথাই বলছি | দোকানটির নাম “আপনজন’ |

আরো পড়ুন:  বাবা অক্ষয় নন্দীকে নেতাজি বলেছিলেন, "আমাকে কথা দিন অমলার নাচ ছাড়াবেন না"

এই দোকানের যারা রোজ ক্রেতা তাদের কথায় এইরকমের ফিশ ফ্রাই কলকাতার কোথাও পাওয়া যায় না | এর পাশাপাশি মটন চপ, চিকেন কাটলেট, ফিশ কাটলেট , ফিশ কবিরাজি, ফিশ রোল , ফিশ চপ, ডিমের ডেভিল, চিকেন পকড়া সহ অন্যান্য পদগুলিও এক কথায় অসাধারণ | এখন ফিশ ফ্রাইয়ের দাম করা হয়েছে ১৬০ টাকা |

আরো পড়ুন:  মন্দিরের ঘন্টা বাজিয়ে ডাকাতদের হামলার সতর্কবার্তা ছড়িয়ে দেওয়া হত,ঘন্টার ঠনঠন শব্দ থেকে মন্দিরের নাম হল ঠনঠনিয়া

কিন্তু কি এই দোকানের সাফল্যের রহস্য ?
এই দোকানের সাফল্যের রহস্য হল গুণমান | দোকানের মালিকের সামনেই মাছ কেনা এবং কাটা হয় | তারপর সুন্দরভাবে পরিষ্কার করে রান্না করা হয় | রান্নায় ব্যবহার করা হয় উন্নত মানের মশলা, তেল | বাঙালি ব্যবসা করে না বা বাঙালি ব্যবসা করতে পারে না , এটা আমরা প্রায়ই শুনি | কিন্তু এই কথাকে ভুল প্রমাণ করে দিয়েছে আপনজন | কালীঘাটের পাশাপাশি তারা নাকতলা, সল্টলেক নিউটাউনেও নতুন আউটলেট চালু করেছে | এর পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ক্যাটারিংয়ের সুবিধাও রয়েছে |

আরো পড়ুন:  ‘অম্বিকা-কালনা‘র নামকরণের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বহু ইতিহাস

বেশি দেরি চলে আসুন ‘আপনজন’ এ | একবার খেলে এই দোকানের ফিশ ফ্রাই মুখে লেগে থাকবে |

তথ্য – KolkataTalkJhalMisti

Avik mondal

Avik mondal

করোনাকে না করো

ভাইরাসের কবলে আজ সারা বিশ্ব,গৃহবন্দী বিশ্ববাসী।বন্ধ দ্বার খুলতে তাই নিজেদের সুরক্ষিত রাখুন,হাত ধুয়ে নেমে পড়ুন এই ভাইরাস দমনে।